SylhetNewsWorld | সাংবাদিক কনক সরওয়ারের বোনকে মুক্তির আহবান ১৫টি আন্তর্জাতিক সংগঠনের - SylhetNewsWorld
সর্বশেষ
 আত্মসমর্পণ করে আজ জামিন চাইবেন সম্রাট ইউক্রেনকে রাশিয়ার কাছে ভূখণ্ড ছাড়ার পরামর্শ কিসিঞ্জারের স্থান-কাল বুঝে উন্নয়ন পরিকল্পনার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ঘরে বসে পাওয়া যাবে ভুমি সেবা: বিভাগীয় কমিশনার তারা ক্ষমতায় থেকেও ভালো নেই, ঘুম হয় না: মোশাররফ গণকমিশনের নামে কেউ বিশৃঙ্খলা করলে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ইউক্রেনের জন্য ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যুতে সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের শোক অর্থনীতি নিয়ে জরুরি বৈঠকের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর পাল্টা ব্যবস্থা, ফ্রান্স-ইতালি-স্পেনের ৮৫ কূটনীতিক বহিষ্কার করল রাশিয়া

সাংবাদিক কনক সরওয়ারের বোনকে মুক্তির আহবান ১৫টি আন্তর্জাতিক সংগঠনের

  |  ১৫:৪৪, জানুয়ারি ২৮, ২০২২

সাংবাদিক কনক সরওয়ারের বোন নুসরাত শাহরিন রাকাকে মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও মানবাধিকার রক্ষায় কাজ করা ১৫টি আন্তর্জাতিক সংগঠন। বৃহস্পতিবার অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বরাবর পাঠানো এক চিঠিতে এ আহ্বান জানায় সংগঠনগুলো। এতে বলা হয়, ‘আমরা নিম্ন স্বাক্ষরকারী ১৫ গণমাধ্যম এবং মানবাধিকারের পক্ষে কাজ করা সংগঠন সাংবাদিক কনক সরওয়ারের বোনের জামিনের বিরোধিতা না করা, তার আইনজীবীদের সহায়তা দেয়া এবং সংশ্লিষ্ট আদালত যেন দ্রুত মুক্তির ব্যবস্থা করে দেন সে আহ্বান জানাচ্ছি।’
কমিটি টু প্রোটেক্ট জার্নালিজম বা সিপিজের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওই চিঠিতে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত সাংবাদিক কনক সরওয়ারের বিরুদ্ধে থাকা মামলা প্রত্যাহারেরও আহ্বান জানানো হয়েছে। একইসঙ্গে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন সংশোধনেরও আহ্বান জানানো হয় এতে। বলা হয়, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন এবং মুক্ত মতপ্রকাশের নীতি অনুযায়ী সংশোধন না করা হলে বাংলাদেশ ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন যেন বাতিল করা হয়। চিঠিতে আরও বলা হয়, রাকার ওপর হওয়া নিপীড়ন এ বার্তা দিচ্ছে যে, বাংলাদেশে কিংবা বিদেশে যেখানেই হোক, সমালোচনামূলক রিপোর্টিং বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে কর্তৃপক্ষ।
চিঠিতে বলা হয়, বর্তমানে রাকা কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি সেলে আটক রয়েছেন, যেখানে আরও প্রায় ৫০ জন বন্দি রয়েছেন। চিঠিতে রাকার জামিন না পাওয়া নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে বলা হয়, ডিসেম্বর ও জানুয়ারি মাসে পাঁচ বার তার জামিন আবেদনের শুনানি স্থগিত করেছেন আদালত। এরপর গত ২৫শে জানুয়ারি তার জামিন আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।
চিঠিতে সাংবাদিক কনকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের ভয় প্রদর্শন ও হয়রানিমূলক আচরণ নিয়েও উদ্বেগ জানিয়েছে সংগঠনগুলো।

বাংলাদেশ সরকারের উদ্দেশ্যে বলা হয়, নির্বাসিত সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্য এবং সমালোচকদের সঙ্গে যে প্রতিশোধমূলক নীতি বাংলাদেশ সরকার অবলম্বন করছে পুরো বিশ্ব তা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। চিঠির শেষে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহারের বিষয়টি স্বীকার করায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হককে স্বাগত জানানো হয়েছে। এতে স্বাক্ষরকারী ১৫ গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন হচ্ছেÑ অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল, কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টস, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস, অ্যান্টি ডেথ পেনাল্টি এশিয়া নেটওয়ার্ক, আর্টিকেল নাইনটিন, এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশন, ক্যাপিটাল পানিশম্যান্ট জাস্টিস প্রজেক্ট, কোয়ালিশন ফর হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসি ইন বাংলাদেশ, একসেস নাউ, ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন ফর হিউম্যান রাইটস, ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব জার্নালিস্টস, পেন আমেরিকা, পেন বাংলাদেশ এবং রবার্ট এফ কেনেডি হিউম্যান রাইটস।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ