সর্বশেষ
 আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই এসেছে বাঙালির সব অর্জন: তথ্যমন্ত্রী ইরানের নতুন প্রেসিডেন্টকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন ভারত টিকার টাকা ফেরত দেবে কি না, যা বললেন অর্থমন্ত্রী ইরানের ওপর থেকে ১০৪০টি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে রাজি যুক্তরাষ্ট্র জেনে বুঝেই এনআইডি সেবাকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে আনছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একদিনে শনাক্ত সাড়ে ৫ হাজার ছাড়িয়েছে, মৃত্যু আরও ৮৫ বৃটিশ যুদ্ধজাহাজের দিকে গোলা ছুড়ল রাশিয়া বাঘার সাবেক চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকিত স্মরনে প্যারিসে শোকসভা সুইজারল্যান্ডে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের মহিলা সম্পাদিকা সুলতানা খান ভারতে ধরা পড়ল করোনার ডেল্টা প্লাস প্রজাতি, আক্রান্ত ২১

অক্সফোর্ডের টিকা নিরাপদ: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  |  ০৮:০৬, মার্চ ১৬, ২০২১

ইউরোপসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রক্তে জমাট বাঁধার আশঙ্কায় সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা ভ্যাকসিনের প্রয়োগ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হচ্ছে। তবে অক্সফোর্ডের টিকা প্রয়োগ স্থগিত না করার আহবান জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বিবিসি।

ইউরোপের কয়েকটিসহ বেশ কিছু দেশ অক্সফোর্ড
অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেয়া স্থগিত করার সিদ্ধান্তের পর সংস্থাটির পক্ষ থেকে এমন আহবান আসলো। সংস্থাটি বলছে এ টিকার সাথে ব্লাড ক্লট বা রক্ত জমাট বাঁধার কোন প্রমাণ তারা পায়নি। জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালি ও স্পেনও তাদের পূর্বসতর্কতার অংশ হিসেবে এ টিকা প্রয়োগ স্থগিত রাখার কথা জানিয়েছে।

এমন প্রেক্ষাপটে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিকা বিশেষজ্ঞরা আজ এ বিষয়ে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য আজ আলাদাভাবে বৈঠকে বসবে ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি (ইএমএ) এবং এ বিষয়ে বৃহস্পতিবারের মধ্যে একটি সিদ্ধান্ত তারা নেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ভ্যাকসিন নেওয়ার পর রক্তে জমাট বাঁধার বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাধারণভাবে মানুষের মধ্যে রক্তে জমাট বাঁধার চেয়ে ভ্যাকসিন নেওয়ার পর এমন ঘটনার সংখ্যা বেশি না।

অ্যাস্ট্রাজেনেকা বলছে, ইউরোপ ও যুক্তরাজ্যে ১ কোটি ৭০ লাখের বেশি এক ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। তবে গত সপ্তাহে ৪০ জনের মতো রক্তে জমাট বাঁধার ঘটনা ঘটেছে। বিবৃতিতে ডব্লিউএইচও জানায়, ভ্যাকসিন নিয়ে বিভিন্ন প্রতিবেদন সংস্থার পক্ষ থেকে পর্যালোচনা করা হচ্ছে। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ হলো ভ্যাকসিন প্রয়োগের কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়া।

ডব্লিউএইচও মুখপাত্র ক্রিস্টিয়ান লিন্ডেমেইয়ার জানান, সংস্থার পক্ষ থেকে এই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, যখনই বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত সম্পর্কে জানতে পারবে, বর্তমান সুপারিশমালায় যদি কোনও পরিবর্তন ঘটে এবং প্রাপ্ত তথ্য দ্রুততার সঙ্গে জনগণকে জানানো হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ