SylhetNewsWorld | মার্কিন সিনেটে আটকে গেল ক্যাপিটল হিল হামলার তদন্ত - SylhetNewsWorld
সর্বশেষ
 মাদ্রিদে আল আমান মসজিদে’র কুরআন শিক্ষার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরণ স্পেনে সংবর্ধিত হলেন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সিরাজুল ইসলাম তসলু নকশী বাংলা ফাউন্ডেশন সম্পাদকের পিতৃবিয়োগ বিভিন্ন মহলের শোক স্পেনে বায়তুল মুকাররম মসজিদের খাদিম আব্দুস শুক্কুর অসুস্থঃদোয়া কামনা দারুল কিরাত মজিদিয়া ফুলতলি ট্রাস্ট মাদ্রিদ শাখার পুরস্কার বিতরণী সম্পন্ন স্পেনে অনুষ্ঠিত হলো বৃহত্তর নোয়াখালী সমিতি’র অভিষেক বাজেট অনুষ্ঠানে মেয়র আরিফের ঘোষণায় বিব্রত সাংবাদিকরা স্পেন থেকে আফগানিস্তান থেকে উদ্ধারকৃত ছয়জন বাংলাদেশীকে দেশে প্রত্যাবর্তন বাংলাদেশ দূতাবাস এথেন্স-এ ইলেক্ট্রনিক পাসপোর্ট সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন স্বাধীনতার সূবর্ন জয়ন্তিতে স্পেনে ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন

মার্কিন সিনেটে আটকে গেল ক্যাপিটল হিল হামলার তদন্ত

  |  ১৫:২২, মে ৩০, ২০২১

মার্কিন সিনেটে আটকে গেল ক্যাপিটল হিল হামলার তদন্ত বিল। সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সমর্থকদের ওই হামলার ঘটনায় দ্বিদলীয় তদন্ত কমিশন গঠনের একটি বিল আটকে দিয়েছে বিরোধী রিপাবলিকান সিনেটররা।

এর মধ্য দিয়ে ব্যাপক জনসমর্থন সত্ত্বেও ৯/১১ স্টাইলের তদন্ত প্রক্রিয়াটি কার্যত অঙ্কুরেই শেষ হয়ে গেল। গত সপ্তাহেই প্রতিনিধি পরিষদে (হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস) ব্যাপক ব্যবধানে পাশ হয়েছিল বিলটি।

তদন্ত কমিশন গঠনে সিনেট রিপাবলিকানদের এই পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও শীর্ষ ডেমোক্র্যাট নেতারা।

হতাশা প্রকাশ করেছেন ৯/১১ হামলার তদন্ত কমিশনের প্রধান টমাস কিনও। সিনেটের এই ব্যর্থতাকে ‘গণতন্ত্রের পরাজয়’ বলে আখ্যা দিয়েছেন তিনি। খবর রয়টার্স ও দ্য গার্ডিয়ানের।

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জয় সত্যায়ন ও অভিষেক অনুষ্ঠান ঘিরে চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে হামলা সারাবিশ্বের গণতন্ত্রকামী মানুষকে স্তব্ধ করে দিয়েছিল।

নির্বাচনে কারচুপি নিয়ে বিদায়ি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উসকানিমূলক বক্তব্যের পর ক্যাপিটল হিল ভবনের ভেতরে প্রবেশ করে রীতিমতো তাণ্ডব চালায় সমর্থকরা।

এতে একজন পুলিশ অফিসারসহ প্রাণ হারান পাঁচজন। হুমকির মুখে পড়ে সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান রাজনীতিক মাইক পেন্সের জীবনও।

ক্ষমতা থেকে বিদায় নেওয়ার মাত্র দুই সপ্তাহ আগে হওয়া এ হামলার ঘটনায় ট্রাম্পের উসকানি ছিল বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে ট্রাম্প এই অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন।

সেই তাণ্ডবের ঘটনাটি নিয়ে তদন্তের উদ্যোগকে শুরুতেই বানচাল করে দিয়েছেন রিপাবলিকান সিনেটররা। শুক্রবার ফেডারেল বাজেট সম্পর্কিত আলোচনার মধ্যে এ নিয়ে ভোটাভুটি হয়।

১০০ আসনের সিনেটে এ সম্পর্কিত এক প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়েছে ৫৪টি। বিপক্ষে পড়েছে ৩৫টি এবং এরা সবাই রিপাবলিকান। উদ্যোগটিকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য ৬০ ভোটের প্রয়োজন ছিল।

সিনেটে বর্তমানে দুই দলের আসন ৫০-৫০। এক্ষেত্রে কমপক্ষে ১০ জন রিপাবলিকান সিনেটরকে বিলটির পক্ষে ভোট দিতে হতো। কিন্তু কমিশন গঠনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে রিপাবলিকানদের প্রতি হুঁশিয়ারি দেন ট্রাম্প। এ ব্যাপারে ‘ডেমোক্র্যাটদের ফাঁদে পা’ না দেওয়ার আহ্বান জানান।

রিপাবলিকান পার্টির সিনেটরদের দাবি, চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল ভবনে হামলার ঘটনা ইতোমধ্যেই কংগ্রেশনাল প্যানেলের মাধ্যমে তদন্ত করা হয়েছে।

তবে ডেমোক্র্যাটদের দাবি, ২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে নাইন-ইলেভেনের হামলার পর গঠিত হওয়া কমিশনের মতো এবারও একই ধরনের একটি তদন্ত কমিশন গঠন করা হলে তা যে কোনো ধরনের হামলার হাত থেকে ভবিষ্যতে ক্যাপিটল ভবনকে রক্ষা করা যেত।

রিপবলিকান পার্টির সমালোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলছেন, ‘আমেরিকায় গৃহযুদ্ধ-পরবর্তী সময় ক্যাপিটলের ওপর হওয়া সবচেয়ে বড় হামলার ঘটনা তদন্তের জন্য প্রয়োজনীয় কমিশন গঠনের বিরুদ্ধে কেউ ভোট দিতে পারে, এটা আমি চিন্তাই করতে পারি না।’

প্রস্তাবটি পাশ হলে বিষয়টি সম্পর্কে তদন্ত এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হতো। ট্রাম্পকেও জবাবদিহিতার আওতায় নিয়ে আসা যেত। কিন্তু সেটি আর সম্ভব হচ্ছে না।

প্রস্তাবটি পাশ না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সিনেটে ক্ষমতাসীন ডেমোক্র্যাট দলের নেতা চাক শুমার। তিনি বলেন, ‘এটা রিপাবলিকান পার্টির জন্য লজ্জার।

এ দলটি আব্রাহাম লিঙ্কনের দল ছিল। আমাদের আদর্শগত অমিল থাকলেও আমরা সত্যের পক্ষে। কিন্তু আজ আমাদের সহকর্মী রিপাবলিকাদের কারণে দেশবাসী সত্য জানা থেকে বঞ্চিত হলো। এ নিয়ে এখন আর আলোচনা পর্যন্ত করা যাবে না। তারা ট্রাম্পের মতো বড় একজন মিথ্যাবাদীকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ