সর্বশেষ

ভণ্ডামির বিবৃতি আর দেখতে চাই না: জয়

  |  ১৮:০৭, জানুয়ারি ০৯, ২০২১

যেসব মিথ্যা তথ্য সহিংসতায় উস্কানি দেয় তা ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট, আরো কয়েকজন এবং কিছু সংগঠনকে নিষিদ্ধ করেছে টুইটার ও অন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। এটা হলো যুক্তরাষ্ট্রে মুক্ত মতপ্রকাশের স্বাধীনতার সীমা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের টুইটার একাউন্ট বন্ধ প্রসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভেরিফাইড পেইজে এক পোস্টে এসব কথা লিখেছেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র, তথ্য প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়। তিনি আরো লিখেছেন, যারা আমাদের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে অভিযোগ করেন, তাদের সবার জন্য বলছি, বেসরকারি কোম্পানিগুলোকে আদেশ জারির ক্ষমতা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। বাংলাদেশে আমরা মনে করি এই সিদ্ধান্ত হওয়া উচিত আদালতের, কোনো প্রাইভেট কোম্পানির নয়।

সবারই মুক্ত মতপ্রকাশের অধিকার আছে। কিন্তু সেই স্বাধীনতা শেষ হয়ে যায়, যখন আপনি মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে দেন। এসব তথ্য অন্যদের আঘাত করে।

অন্যকে আঘাত দেয়ার অধিকার কারো নেই।
ঢাকায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস ও পশ্চিমা অন্য দেশগুলোর দূতাবাসকে এই পোস্ট থেকে ‘নোট’ নেয়ার অনুরোধ করছি। বাংলাদেশে ভবিষ্যতে আর মত প্রকাশের স্বাধীনতার নামে আপনাদের কপট (হিপোক্রেটিক্যাল) বিবৃতি আমরা দেখতে চাই না।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ