SylhetNewsWorld | রেমিট্যান্স জাদু নয়, যে জায়গায় ছিল সেখানেই থাকবে: অর্থমন্ত্রী - SylhetNewsWorld
সর্বশেষ
 স্পেনে অনুষ্ঠিত হলো বৃহত্তর নোয়াখালী সমিতি’র অভিষেক বাজেট অনুষ্ঠানে মেয়র আরিফের ঘোষণায় বিব্রত সাংবাদিকরা স্পেন থেকে আফগানিস্তান থেকে উদ্ধারকৃত ছয়জন বাংলাদেশীকে দেশে প্রত্যাবর্তন বাংলাদেশ দূতাবাস এথেন্স-এ ইলেক্ট্রনিক পাসপোর্ট সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন স্বাধীনতার সূবর্ন জয়ন্তিতে স্পেনে ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন বসিলায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়িতে অভিযান, আটক ১ জার্মানি থেকে অবৈধ বাংলাদেশিদের দ্রুত ফেরাতে চায় সরকার অন্যকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ দিলেন রুশ মন্ত্রী নর্থ মেসিডোনিয়ার হাসপাতালে আগুন, ১০ কোভিড রোগীর মৃত্যু সাবেক কর্মকর্তাদের দেশে ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন তালেবান প্রধানমন্ত্রী

রেমিট্যান্স জাদু নয়, যে জায়গায় ছিল সেখানেই থাকবে: অর্থমন্ত্রী

  |  ১৬:১৭, আগস্ট ১১, ২০২১

রেমিট্যান্স যে জায়গায় ছিল সেখানেই থাকবে অর্থমন্ত্রী
রেমিট্যান্স যে জায়গায় ছিল সেখানেই থাকবে অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানিয়েছেন, রেমিট্যান্স কোনো জাদু নয়, এ কারণে রেমিট্যান্স যে জায়গায় ছিল সেখানেই থাকবে বলে আশা করছি।

বুধবার (১১ আগস্ট) ২২তম অর্থনৈতিক সংক্রান্ত এবং ২৭তম সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান অর্থমন্ত্রী। আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ভার্চ্যুয়ালি এ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

সিপিডির মন্তব্য রেমিট্যান্সের জাদু শেষ হয়ে আসছে- এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, রেমিট্যান্স জাদু নাকি? রেমিট্যান্স যদি জাদু হয়ে থাকে তাহলে শেষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু রেমিট্যান্স তো কোনো জাদু নয়। তাই রেমিট্যান্স কখনো শেষ হবে না। রেমিট্যান্স যে জায়গায় ছিল সেখানেই থাকবে।

তিনি আরও বলেন, সমস্যা হচ্ছে, ২০১৯ সালে আমরা যখন রেমিট্যান্সের বিষয়ে প্রণোদনা প্রদান করা শুরু করি তখন থেকে একটি নির্দিষ্ট গোষ্ঠী অবস্থান নেয় এর বিরুদ্ধে। তারা সবসময় বলে আসছিলো যে, প্রণোদনা দিয়ে কখনো রেমিট্যান্স বৃদ্ধি করা সম্ভব নয় এবং তারা বলেছে এটা কখনো বৃদ্ধি পাবে না। এটা সাময়িক এবং সাসটেইনেবলও বলেছিল তারা। এটা যেকোনো মুহূর্তে শেষ হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সালে যখন প্রণোদনার জন্য আমরা ঘোষণা দিয়েছিলাম তার আগে রেমিট্যান্স ছিল প্রতি বছর ১৩ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার। ২ শতাংশ প্রণোদনা দেয়ার পর প্রথম বছরই সংগ্রহ করলাম ১৮ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার। দ্বিতীয় বছরে এই হার বেড়ে ২৫ বিলিয়ন ডলারে চলে যায়। রেমিট্যান্স যখন বেশি আসলো তখন তারা বললো অনেক বেশি এসেছে। তারা চায় কম-বেশি আসুক।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ