সর্বশেষ

শ্রাবন্তীর পর নুসরাতের সংসারে ভাঙনের সুর!

  |  ১১:২২, জানুয়ারি ১০, ২০২১

ট্রল আর নুসরাত জাহান যেন প্রায় সমার্থক। তাকে ঘিরে যেন বিতর্কের শেষই হচ্ছে না। কোনো ছবি পোস্ট করলেই সেখানে তির্যক মন্তব্যের ঝড় বয়ে যায়। তবে এবার ঘটনা মোড় নিয়েছে অন্যদিকে। আরেক অভিনেতা যশ দাশগুপ্তকে জড়িয়ে নেটাগরিকরা আক্রমণ করলেন সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহানকে।

কলকাতার গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, নুসরাত ও তার স্বামী নিখিল জৈন একসঙ্গে থাছেন না। তারা দুজনেই আলাদা থাকছেন! অভিনেত্রী থাকছেন তার বাবা-মায়ের সঙ্গে বালিগঞ্জের বাড়িতে। তবে কি তাদের সংসারে ভাঙনের সুর উঠেছে? এমনই মন্তব্য করছেন নেটাগরিকরা।

নুসরাতের ইন্সটাগ্রাম ঘেঁটে দেখা যায়, তিনি তার স্বামী নিখিল জৈনকে আর ফলো করছেন না। নুসরাতের ২৫০ জন ফলোয়িং লিস্টে নাম নেই নিখিলের। শুধু তাই নয়, বেশ অনেকদিন ধরেই স্বামীর সঙ্গে ছবিও পোস্ট করছেন না। ইন্সটাগ্রামে স্বামীর সঙ্গে তেমন ছবিও নেই এখন। সর্বশেষ স্বামীর সঙ্গে ছবি পোস্ট করতে দেখা যায় ২০২০ সালের জুন মাসে। এরপর আর দেখা যায়নি।

অন্যদিকে, নিখিলও নুসরাতকে ইন্সটাগ্রামে আনফলো করে দিয়েছেন। তার ৩৫৫ জন ফলোয়িং লিস্টে নাম নেই নুসরাতের।

এদিকে কিছুদিন আগেই অভিনেতা যশের সঙ্গে নুসরাতের রাজস্থানে ছুটি কাটাতে যাওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসে। অন্যদিকে, নুসরাতের জন্মদিনের পার্টিতে ‘বন্ধু’ যশ উপস্থিত থাকলেও ছিলেন না স্বামী নিখিল জৈন। শুধুমাত্র ছবি করতে গিয়েই কি তারা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লেন, সেই প্রশ্নই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে নেটাগরিকদের মনে।

মন্তব্যের ঘরে প্রশ্ন উঠেছে, ‘সাংসদ হয়ে রাষ্ট্রকে শেখাতে চাইছেন সো কলড ফ্রেন্ড যশ দাশগুপ্তকে নিয়ে কী করে বেহায়াপনা করতে হয়?’। এখানেই শেষ নয়। নুসরাতের সঙ্গে যশের ঘনিষ্ঠতাকে ‘নোংরামি’ বলেও কটাক্ষ করেছেন এক নেটাগরিক। তার প্রশ্ন, ‘আপনার সঙ্গে আপনার হাজব্যান্ডের সমস্যা হতেই পারে, তার জন্য যশের ঘাড়ে চাপার মানে কী?’

সূত্রের খবর, যদিও সম্পর্কের চিড় নিয়ে নুসরাত মুখ খুলতে নারাজ। তবে দু’য়ে দু’য়ে চার করলে, স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্কের ভাঙনের অঙ্কটা বুঝে নিতে অসুবিধা হচ্ছে না গোটা টলিউড তথা অনুরাগী মহলের।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ