SylhetNewsWorld | বিশ্বনাথের এক কিশোরীকে একাধিক স্থানে নিয়ে ধর্ষণ - SylhetNewsWorld
সর্বশেষ
 সিলেট চেম্বারের নির্বাচন শতভাগ নিরপেক্ষ করতে আমরা বদ্ধপরিকর: জলিল প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীকে গ্রীস আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা পাঁচদিনের সফরে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী গ্রিসে পাঁচদিনের সফরে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী গ্রিসে স্পেনে বাংলাদেশী শিশুরা স্পানিশ ক্লাবে ক্রীড়া নৈপূণ্য প্রদর্শন করছে বেগম জিয়ার রোগমুক্তির কামনায় কোকো স্মৃতি সংসদ ইউরোপের দোয়া এনআরবি ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ জামিল ইকবাল দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ করদাতা নির্বাচিত স্পেনে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে নির্বাচন কমিশনের মতবিনিময় সভা মাদ্রিদে গাজীপুর এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন স্পেনে নির্বাচন কমিশনার খোরশেদ আলম মজুমদার, সদস্য সচিব মোঃ দুলাল সাফা

বিশ্বনাথের এক কিশোরীকে একাধিক স্থানে নিয়ে ধর্ষণ

  |  ১৭:৪৮, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০২১

সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার হান্দরচর গ্রামে স্বজনদের সামনে থেকে প্রকাশ্যে শিশু অপহরণের পর একাধিক স্থানে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে আজাদ মিয়া (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাতে এক সিএনজিচালক শহরের একটি রাস্তা থেকে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানেই তিনি বর্তমানে চিকিৎসাধীন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গত রোববার (৩১ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের বেতগঞ্জ বাজারে দোকানঘরের পেছনের দরজা ভেঙে ওই কিশোরীর (১৩) স্বজনদের জিম্মি করে প্রকাশ্যে তুলে নেয় পাশের রহমতপুর গ্রামের মো. আব্দুর রহিমের ছেলে আজাদ মিয়া। পরে ওই কিশোরীকে একাধিক স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে ওই বখাটে। পরদিন রাতে ওই শিশুকে শহরের কোর্ট পয়েন্ট এলাকায় ফেলে যায়। পরে সেখান থেকে এক সিএনজিচালক তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। খবর পেয়ে স্বজনরা মেয়েকে শনাক্ত করেন।

শিশুর বাবা বলেন, তাদের বাড়ি সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার হান্দরচর গ্রামে। মাসখানেক আগে জীবন-জীবিকার প্রয়োজনে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে তারা সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের বেতগঞ্জ বাজারে আসেন। সেখানে একটি ঘর ভাড়া নিয়ে চায়ের দোকান শুরু করেন। দোকানের পিছনের একটি বাসায় তারা থাকতেন।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) রফিকুল ইসলাম জানান, তার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। তাকে সর্বোচ্চ চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুর রহমান বলেন, অভিযুক্তকে আটকের চেষ্টা করছে পুলিশ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ