সর্বশেষ
 সংসদে পরীমনি নিয়ে আলোচনা হয়, এই লজ্জা কোথায় রাখি: জাফরুল্লাহ মহামারির মধ্যেও যুদ্ধে বাস্তুচ্যুত ৮ কোটি ২০ লাখ মানুষ: জাতিসংঘ সিলেট জেলা ট্রাক পিকআপ কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতি নামক ঘোষিত নতুন সংগঠন অবৈধ মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তি: রেজ্যুলেশনের কপি নিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্রেন স্ট্রোক করেছেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার শাদিদ,ঢাকায় প্রেরণ সিলেটে পৌঁছেছে ৩৭ হাজার ২০০ ডোজ টিকা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমঝোতার ইঙ্গিত কিমের ফাইজার-মডার্নার ভ্যাকসিন শুক্রাণুর সংখ্যা কমায় না: গবেষণা সুইস ব্যাংকে টাকার পাহাড় ভারতীয়-বাংলাদেশিদের ইহুদিরা আমাকে ভোট দেয়নি: ট্রাম্প

গোলাপগঞ্জ ও জকিগঞ্জের চার আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

  |  ১৮:৩৫, জানুয়ারি ১৯, ২০২১

আওয়ামী লীগের দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে অংশ নেয়ায় সিলেটের গোলাপগঞ্জ ও জকিগঞ্জের চারজনকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। সোমবার জেলা আওয়ামী লীগের জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

গোলাপগঞ্জ ও জকিগঞ্জ আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

জানা যায়, দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ায় সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান পৌর মেয়র আমিনুল ইসলাম রাবেল ও একই কারণে গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলুকে বহিষ্কার করা হয়।

এছাড়াও জকিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ফারুক আহমদ ও জকিগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আব্দুল আহাদকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

আব্দুল আহাদের বিষয়ে সিলেট জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে আওয়ামী লীগের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দির খান।

তিনি বলেন, দলের সিদ্ধান্ত না মেনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের সুপারিশের ভিত্তিতে সিলেটের জকিগঞ্জের দুজন ও গোলাপগঞ্জের আরও দুজন নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ