সর্বশেষ

সিলেটে ১০ বছর ধরে ডাকাতি করে আসছে হাজারী!

  |  ১৭:৫০, ডিসেম্বর ১৫, ২০২০

ফেনীর ‘গডফাদার’ জয়নাল হাজারীকে দেশের মানুষ এক নামে চিনেন। তবে সিলেটের হাজারী সম্পর্কে অনেকেই জানতেন না। মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) পুলিশের খাঁচায় বন্দি হওয়ার পর সে প্রকাশ্যে আসে। যার বিরুদ্ধের সিলেট বিভাগের বিভিন্ন থানায় মোট ২১টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলাগুলো আদালতে বিচার ও তদন্তাধীন।

সিলেটের বালাগঞ্জের সাদিকপুর গ্রামের মােবাশ্বির আলীর ছেলে শিপন হাজারী। বয়স মাত্র ৩১ বছর হলেও এরই মধ্যে সে সিলেটে কুখ্যাতি পেয়েছেন ভয়ঙ্কর ডাকাত হিসেবে। পুলিশের বক্তব্য অনুযায়ী- প্রায় ১০ বছর ধরে সে ডাকাতি করে আসছে। এখন ডাকাত দলের সর্দার সে। মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় বিশ্বনাথের উত্তর ধর্মদা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, সোমবার বিশ্বনাথ থানা এলাকায় সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ডাকাতি করার জন্য একত্রিত হয়। এসময় রাজীব ও সবুজ নামের ২ ডাকাতকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ দুজনের দেয়া তথ্যমতে তাদের দলনেতা শিপন হাজারীকে মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় বিশ্বনাথের উত্তর ধর্মদা এলাকা হতে গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর তার দেয়া তথ্যমতে ওই এলাকার কবরস্থান হতে ২টি দেশিয় পাইপগান, ১ টি গ্রিল কাটার ও ৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ আরো জানায়, সে আন্ত:বিভাগীয় ডাকাত দলের সর্দার। ডাকাত সর্দার শিপন হাজারীর বিরুদ্ধে সিলেট জেলা, সিলেট মেট্রোপলিটন এলাকা ও মৌলভীবাজার জেলার বিভিন্ন থানায় দায়েরকৃত ডাকাতি ও অস্ত্রসহ মোট ২১টি মামলা আদালতে বিচারাধীন ও তদন্তাধীন রয়েছে।

শিপন হাজরীর বিরুদ্ধে দায়েকৃত মামলার থানা ও সংখ্যা হচ্ছে- মৌলভীবাজার জেলার সদর থানায় ৪টি, রাজনগরে ১টি, সিলেট জেলার জৈন্তাপুর থানায় ১টি, কানাইঘাটে ১টি, বালাগঞ্জে ৩টি, গোলাপগঞ্জে ৩টি, ফেঞ্চুগঞ্জে ৩টি, বিশ্বনাথে ১টি এবং  সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের দক্ষিণ সুরমা থানায় ২টি ও মোগলাবাজারে ২টি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ