SylhetNewsWorld | সিলেটের প্রবীণ শিক্ষাবীদ অধ্যাপক আকরাম আলীর ইন্তেকাল,দাফন সম্পন্ন - SylhetNewsWorld
সর্বশেষ

সিলেটের প্রবীণ শিক্ষাবীদ অধ্যাপক আকরাম আলীর ইন্তেকাল,দাফন সম্পন্ন

  |  ২২:৪৭, মার্চ ০১, ২০২২

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, সিলেট মদনমোহন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মো, আকরাম আলী ইন্তেকাল করেছেন।( ইন্না-লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় সিলেট নগরীর একটি বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে মরহুমের বয়স ছিল ৮০ বছর, তিনি স্ত্রী, ৩ পুত্র, ২ কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি দীর্ঘদিন যাবত বার্ধক্যজনিত কারনে নানা রোগে ভুগছিলেন। আজ মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় সদ্য সম্প্রসারিত সিলেট নগরীর টুকেরবাজার এলাকার তাঁর নিজ বাড়ি শেখপাড়া বড়গাঁও জামে মসজিদ সংলগ্ন মাঠে জানাজা শেষে প্বার্শবর্তী কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়। জানাজার পুর্বে মরহুমের কর্মময় জীবন নিয়ে আলোচনা করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দীন সিরাজ,সিলেট সদট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ,
সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন,গোবিন্দগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক,সিলেট মদন মোহন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যক্ষ আতাউর রহমান পীর,ড,আবুল ফতেহ ফাত্তাহ,সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাহফুজুর রহমান মাহফুজ,সিলেট জেলা কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি অধ্যাপক শফিকুর রহমান,সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমদ মকসুূদ,টুকেরবাজার ইউপি চেয়ারম্যান শহীদ আহমদ,সিলেট জেলা বিএনপি নেতা মোঃ তারেক কালাম,স্হানীয় ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দীন,স্হানীয় বিশিষ্ট ব্যাক্তিত্ব কয়ছর আহমদ,লোকমান আহমদ ও আল আমিন প্রমুখ। এতে মরহুমের দীর্ঘ শিক্ষকতার জীবনে সহকর্মী,শতশত ছাত্র, রাজনৈতিক,সামাজিক নেতৃবৃন্দ,জনপ্রতিনিধি,বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রধান, সাংবাদিক সহ সমাজের সকল শ্রেণী পেশার কয়েক হাজার লোক জানাজায় অংশনেন। জানাজায় ইমামতি করেন মরহুম অধ্যাপক আকরাম আলীর বড় ছেলে সিলেট মদনমোহন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আলী আহছান পারভেজ। এদিকে, অধ্যাপক মো, আকরাম আলীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে তার নিজ এলাকা টুকের বাজার এলাকা সহ দেশ ও দেশের বাহিরে পরিচিত মহলে শোকের ছায়া নেমে আসে,তাকে শেষবারের মত দেখতে রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, এলাকাবাসীসহ তার দীর্ঘদিনের সহকর্মী শিক্ষক এবং ছাত্ররা তাঁর শেখপাড়ার বাসায় ছুটে যান। এসময় এক আবেগঘন পরিবেশের অবতারণা হয়।এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর মৃত্যুর সংবাদে দেশ ও বিদেশ থেকে তিনির ছাত্র-ছাত্রী সহ পরিচিত ও ঘনিষ্ঠজনরা ব্যাপকভাবে তাদের অনুভূতি প্রকাশ করেছেন,তারা সকলেই অধ্যাপক আক্রাম আলীর মৃত্যতে গভীর শোক প্রকাশ করে মরহুমের কর্মময় জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন,তারা মহান আল্লাহর কাছে মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোক সন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতি সমবেদনাও জানিয়েছেন।অধ্যাপক আক্রাম আলী পাকিস্তান সরকারের আমলে শিক্ষকতা প্রথম শুরু করেন সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ থেকে,সেখানে কয়েকবছর শিক্ষকতা করে স্বাধীনতার কয়েক বছরপর তিনি সিলেটের ঐতিহ্যবাহী মদনমোহন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক হিসেবে যোগদা করেন,পরে তিনি ধাপে ধাপে পদোন্নতি পেয়ে দীর্ঘদিন এবিভাগের বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। কয়েক দশক তিনি সেখানে শিক্ষকতার সুবাধে হাজার ছাত্র-ছাত্রীদেরকে শিক্ষাদানের সুযোগ হয়েছে তাঁর।একজন আদর্শ শিক্ষক হিসেবে তাঁর বর্তমানে দেশ ও বিদেশে হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রী ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছেন।শিক্ষকতার পাশাপাশি অধ্যাপক আক্রাম আলী ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযোদ্ধের সময় তিনি স্বাধীনতার পক্ষে একজন সংগঠক হিসেবে নিজ এলাকা ও এর বাহিরে বিশেষ ভুমিকা পালন করেছেন। তাঁর নিজ এলাকায় স্কুল,কলেজ, মাদ্রাসা,মসজিদ সহ নানা শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা ও নির্মানে অগ্রণী ভুমিকা পালন করেছেন। বিশেষ করে ১৯৯৩ সালে সিলেট শহরতলী এলাকা টুকেরবাজারে শাহ খুররম ডিগ্রী কলেজ প্রতিষ্ঠার অন্যতম উদ্যাক্তা ও এ কলেজের প্রতিষ্ঠাকালীন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্বও দীর্ঘদিন তিনি পালন করেন। অবসরকালীন সময়েও এলাকার সামাজিক যেকোন কঠিন সময়ে তিনি একজন অভিভাবকের ভুমিকা পালন করতেন।এজন্য তিনি দলমত নির্বিশেষে নিজ এলাকায় ও সকল মহলে একজন গুণীজন হিসেবে সমাদৃত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ