সর্বশেষ

বেসামরিক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরে মিয়ানমারকে জাতিসংঘের চাপ

  |  ১৪:৪০, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২১

মিয়ানমারে বেসামরিক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরে ও গণতন্ত্রীপন্থী নেত্রী অং সান সু চির মুক্তির দাবি জানিয়েছে জাতিসংঘের শীর্ষ মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ)।

এমন এক সময় জাতিসংঘ এই ইস্যুতে সরব হলো যখন জান্তা শাসনের বিরুদ্ধে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশটিতে সপ্তমদিনের মতো গণবিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

ব্রিটেন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের অনুরোধে এক বিরল বিশেষ অধিবেশনে মিয়ানমারে নির্বাচিত সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর ও নির্বিচারে আটক সব বন্দির মুক্তির দাবি জানিয়ে একটি প্রস্তাব গ্রহণ করেছে এইচআরডব্লিউ।

অধিবেশনের শুরুতে জাতিসংঘের উপ-মানবাধিকার প্রধান নাদা আল-নাসিফ বলেন, মিয়ানমারে যা ঘটছে, বিশ্ব তা দেখছে।

পহেলা ফেব্রুয়ারিতে অভ্যুত্থানের পর সু চি ও উইন মিন্টসহ সাড়ে ৩০০ লোককে আটক রেখেছে সামরিক সরকার। যাদের মধ্যে সাংবাদিক, শিক্ষার্থী, সন্ন্যাসী ও মানবাধিকারকর্মীও আছেন।

নাদা আল-নাসিফ বলেন, শান্তিপূর্ণ জমায়েত বন্ধ রাখতে ও বাকস্বাধীনতা হরণে কঠোর নির্দেশ দিয়েছে সেনাবাহিনী। বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিতে প্রাণঘাতী অস্ত্র ব্যবহারেরও নিন্দা জানিয়েছেন তিনি।

নাদা আল-নাসিফ বলেন, আমাদের স্পষ্ট করতে দিন: শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে প্রাণঘাতী ও কম-প্রাণঘাতী অস্ত্রের ব্যবহার অগ্রহণযোগ্য।

তবে জরুরি অধিবেশনকে মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ বলে আখ্যায়িত করে নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির ঐতিহ্যবাহী মিত্র দেশ রাশিয়া ও চীন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ