SylhetNewsWorld | একুশে বইমেলায় ডাঃ জিন্নুরাইন জায়গীরদার এর দু'টি বই - SylhetNewsWorld
সর্বশেষ

একুশে বইমেলায় ডাঃ জিন্নুরাইন জায়গীরদার এর দু’টি বই

  |  ০০:১৭, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২২

 

এ কে আজাদ, আয়ারল্যান্ড থেকেঃ

এবার একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হচ্ছে আয়ারল্যান্ড প্রবাসী ডা. জিন্নুরাইন জায়গীরদারের দুটি বই “বর্ণমিছিল” ও “সমাজ সংকটে”। প্রকাশনা করেছে বর্ষাদুপুর প্রকাশনী।
ভাষা আন্দোলনের সাক্ষী “বর্ণমিছিল” বইটি। আর আমাদের সমাজের নানা অনিয়ম, অবিচার, দুর্নীতি, অন্যায় নিয়ে “সমাজ সংকটে” লেখক বইটি সাজিয়েছেন মনের মাধুরী মিশিয়ে ।

ডা.জিন্নুরাইন জায়গীরদার পেশায় একজন চিকিৎসক। সিলেট উসমানী মেডিকেল কলেজ থেকে এম বি বি এস পাশ করে, আই পি জি এম এন্ড আর এ কাজ করেছেন দীর্ঘদিন। এনেসথেশিয়া (অবেদন ও অচেতনতা) বিষয়ে ডিপ্লোমা, এফ সি পি এস, এম ডি ডিগ্রি অর্জন করে ১৯৯৭ সালে চলে যান সৌদি আরব, এরপর ২০০৩ সালে আসেন প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ডে। উন্নত প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে এফ সি এ ডিগ্রী করেন, বিশেষ ফেলোশিপ করেন হেপাটোবিলিয়ারি এবং লিভার ট্রান্সপ্লান্ট এনেসথেশিয়া বিষয়ে।

বর্তমানে আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনের কনোলি হাসপাতালে কাজ করছেন, এনেসথেশিয়া (অবেদন ও অচেতনতা) এবং ইনটেনসিভ কেয়ারের (নিবিড় পরিচর্য্যা) কনসালটেন্ট হিসাবে কর্মরত আছেন।
সামাজিক কর্মকাণ্ড তার ভালোবাসার অঙ্গন, দেশে অবস্থানকালে স্কাউট, রোভার স্কাউট, লিও ক্লাব, লায়ন্স ক্লাবের সাথে যুক্ত ছিলেন।
প্রবাসী জীবনে তিনি থেমে নেই দায়িত্ব পালন করছেন অল বাংলাদেশী এসোসিয়েশন অব আয়ারল্যান্ডের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট।
অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ এসোসিয়েশন (আয়েবা)’র ভাইস প্রেসিডেন্ট।
ইউরো বাংলা প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা। আইরিশ বাংলাপোষ্ট’র সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি।

শৈশব থেকেই লেখালেখি করেন তিনি
অমর একুশে বইমেলা, ২০২১ সালে তার প্রকাশিত কবিতার দুটি বই হচ্ছে “বিশ্বাসের মৃত্যু” এবং “স্বাধীনতা আমার”।
লেখক এর নতুন দুটি বই” সমাজ সংকটে” ও “বর্ণ মিছিল” পাওয়া যাচ্ছে একুশে বইমেলার বর্ষাদুপুর স্টলে।

লেখক তার লেখনীতে ফুটিয়ে তুলেছেন আশপাশের মানুষের জীবন, সমাজ ব্যবস্থা, দুর্নীতি, জুলুম-অত্যাচার, অনিয়ম। চারপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনার কথা।
সমাজ সংকটে এর ভূমিকায় লিখেন

”মানুষ সমাজবদ্ধ জীব”
সমাজকে কেন্দ্র করেই আমাদের সকল কর্মযজ্ঞ। প্রত্যেক মানুষ একে অপরের কল্যাণের কথা ভেবে সাধ্য মতো সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে নিয়ম ও শৃঙ্খলার অদৃশ্য বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে বাস করলে সেটা হয় সুস্থ সমাজ। এই সমাজকে সুস্থ রাখা এবং এগিয়ে নিয়ে যাওয়া প্রতিটি ব্যক্তির, পরিবারের, সমাজের এবং রাষ্ট্রের অন্যতম দায়বদ্ধতা। সমাজে ধনী, গরিব, শিক্ষিত, অশিক্ষিত, সহায়–সম্বলহীন নানা রকম মানুষের বাস। সমাজে পিছিয়ে পড়া মানুষদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়াই হলো সমাজসেবা।

একটি সমাজে ধনী–গরিব নির্বিশেষে সব রকম মানুষের বাস।
সমাজ নিয়ে ভাবনার বয়স লাগে না, প্রয়োজন আমাদের চিন্তার ও মানসিকতার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ